দারাজের ১১.১১–এর প্রথম দিনে যুক্ত হলেন ২৯ লক্ষাধিক ক্রেতা

লেখক:
প্রকাশ: ৫ মাস আগে

ই-কমার্স সাইট দারাজ বছরের সবচেয়ে বড় বিক্রয় কর্মসূচি দারাজ ১১.১১ শুরু করেছে। দারাজ ১১.১১-এর মাধ্যমে ১১ নভেম্বর ২৯ লক্ষাধিক ক্রেতা এই বিক্রয় কার্যক্রমে অংশ নেন। এর মধ্য দিয়ে ক্রেতারা সুলভ মূল্যে মানসম্পন্ন পণ্য কেনার সুযোগ পেয়েছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বর্তমান বিশ্বে অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জের সঙ্গে বেড়ে চলেছে জীবনযাত্রার খরচ। দারাজ ১১.১১-এর মাধ্যমে ক্রেতারা পেয়ে যাচ্ছেন উন্নতমানের ফ্যাশন, বিউটি, হোম, ডেকোরসহ আরও অনেক পণ্য। সারা বছরের অপেক্ষার পর পছন্দের জিনিসগুলো কেনার সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে অনেক কম দামে, সঙ্গে ৬৩ শতাংশ ক্রেতা উপভোগ করেছেন বিনা মূল্যে পণ্য ডেলিভারি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত এক বছরে দারাজ নতুন নতুন প্রযুক্তিতে বিশেষভাবে বিনিয়োগ করেছে। এতে বিক্রেতাদের পক্ষে অনলাইনে পণ্য বিক্রয় সহজ হয়, যার ফল এবার পাওয়া গেছে। ১৪ হাজারের বেশি ছোট ও মাঝারি উদ্যোক্তা (এসএমই) দারাজের ১১.১১ প্রচারণার মাধ্যমে প্রথম ২৪ ঘণ্টায় পণ্য বিক্রি করেছেন। এই সাফল্যকে সামনে রেখে দারাজ বিক্রেতাদের ক্রমাগত আয় বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখতে পারবে বলে আশাবাদী।

দারাজ গ্রুপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিয়ারকে মিকেলসেন এই মাইলফলক সম্পর্কে বলেন, ‘এই চ্যালেঞ্জিং সময়ে আমরা ক্রেতাদের সম্ভাব্য সর্বোত্তম মূল্যে পণ্য দিতে পেরেছি। এটি আমাদের বিক্রেতা ও অংশীদারদের ছাড়া সম্ভব ছিল না। এ ছাড়া দারাজে আরও অনেক নতুন বিক্রেতা যোগ দিচ্ছেন। দারাজকে ভরসা করার জন্য আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। এবারের ১১.১১-এ ক্রেতাদের অভাবনীয় সাড়া পেয়ে আমরা অত্যন্ত উৎসাহিত। আশা করি, আমরা সারা বছর ক্রেতাদের জন্য সেরা পণ্য, সেরা মূল্য ও সেরা মান নিশ্চিত করার পাশাপাশি আমাদের প্রতিশ্রুতি বজায় রাখতে পারব।’

দারাজ বাংলাদেশের ১১.১১ শীর্ষ প্রচারণার প্রথম ২৪ ঘণ্টার কিছু উল্লেখযোগ্য তথ্য:
প্রথম ২৪ ঘণ্টায় ২ লাখ ৬০ হাজারের বেশি ফ্যাশন পোশাক বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশি নারীদের ঐতিহ্যবাহী পোশাকের সংখ্যাই বেশি। ১ লাখ ৫০ হাজারের বেশি মুঠোফোন, কম্পিউটার ও ল্যাপটপ বিক্রয় হয়েছে। দৈনন্দিন জীবনযাত্রার সব পণ্যের একমাত্র গন্তব্যস্থল হওয়ার প্রতিশ্রুতি বজায় রেখে দারাজ ১ লাখ ৭৫ হাজারের বেশি মুদি পণ্য বিক্রি করেছে। এর মাঝে চাল ও তেলের মতো মৌলিক পণ্য বিক্রি হয়েছে সবচেয়ে বেশি।

১১.১১ ছাড়াও ক্রেতারা সারা বছর দারাজ থেকে প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে সেরা মানের পণ্য কিনতে পারেন।

দারাজ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদল হক বলেন, ‘অংশীদার, ক্রেতা ও দলের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ, তাদের সমর্থন ছাড়া ১১.১১ বাস্তবায়ন করা সম্ভব হতো না। উচ্চ মূল্যস্ফীতির সময় আমাদের এ বছরের লক্ষ্য ছিল, ক্রেতাদের যথাসম্ভব কম মূল্যে পণ্য দেওয়া এবং বিক্রেতা ও উদ্যোক্তাদের জন্য নতুন আয়ের সুযোগ তৈরি করা। আমরা চেয়েছি, জীবনযাত্রার ক্রমবর্ধমান ব্যয় মোকাবিলা করতে ক্রেতাদের সাহায্য করতে। সামনের দিনগুলোয় আমাদের ক্রেতাদের আরও বেশি সাশ্রয় ও বৈচিত্র্যের মাধ্যমে সেরা কেনাকাটার অভিজ্ঞতা দিতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ। সেই সঙ্গে বিক্রেতাদের ব্যবসায়িক বিকাশে সহায়তা করতে আমরা প্রস্তুত।’

১১.১১ বছরের সবচেয়ে বড় বিক্রয় কর্মসূচি, ১১ থেকে ২২ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে দারাজের এই কর্মসূচি।